Posted in খেয়াল করুন, জেনে রাখুন, দেশ ও জাতির প্রতি দ্বায়বদ্ধতা, প্রযুক্তি নিয়ে আউলা চিন্তা, ভালো লাগা, ভালোবাসা

“পেঙ্গুইন মেলা – ২০১২” – সিলেট বিভাগ এবং সংগঠনের ১ম বর্ষপূর্তি উদযাপন


মুক্ত সফটওয়্যার আন্দোলন একটি সামাজিক আন্দোলন যার উদ্দেশ্য কম্পিউটার ব্যবহারকারীর অধিকার সংরক্ষণ করা। এই উদ্দেশ্য বাস্তবায়নের লক্ষ্যে মুক্ত সফটওয়্যার আন্দোলন, মুক্ত সফটওয়্যার তৈরি করতে, ব্যবহার করতে এবং মানোন্নয়ন করতে উৎসাহ প্রদান করে। “সফটওয়্যার চোর” হিসেবে নিজের প্রানের প্রিয় এই বাংলাদেশকে কালিমামুক্ত করতে এবং সফটওয়্যার প্রযুক্তিতে স্বনির্ভর ও মুক্তপ্রযুক্তি নির্ভর বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে মুক্ত সফটওয়্যার, লিনাক্স ও উন্মুক্ত সোর্স ভিত্তিক সফটওয়্যারকে ছড়িয়ে দেবার প্রত্যয়ে মুক্ত প্রযুক্তি ভিত্তিক সফটওয়্যার, লিনাক্স এবং বিভিন্ন সেবাসমূহ নিয়ে কাজ করে যাচ্ছে ফাউন্ডেশন ফর ওপেন সোর্স সলিউশনস বাংলাদেশ (এফওএসএস বাংলাদেশ)।

ফাউন্ডেশন ফর ওপেন সোর্স সলিউশনস বাংলাদেশ এর জনসচেতনতামূলক একটি আয়োজন “পেঙ্গুইন মেলা”। এ বছরের প্রথম আয়োজন “পেঙ্গুইন মেলা- ২০১২” অনুষ্ঠিত হবে আগামী ২৩শে ফেব্রুয়ারি ২০১২ইং, রোজ বৃহঃস্পতিবার। আয়োজনে সহযোগীতা করছে সিলেটের জিন্দাবাজারে অবস্থিত মেট্রোপলিটন বিশ্ববিদ্যালয়ের ইলেকট্রিক্যাল এন্ড ইলেকট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগ। সাংগঠনিকভাবে ১ম বর্ষ পূর্ন করায় একই সাথে সংগঠনের বর্ষপূর্তিও উদযাপন করা হবে।

উক্ত অনুষ্ঠানে সফটওয়্যার পাইরেসি, মুক্ত সফটওয়্যার, ওপেনসোর্স ও লিনাক্স ইত্যাদি বিষয়ে আলোচনার পাশাপাশি আরো রয়েছে অংশগ্রহনকারী দর্শকদের সাথে মতামত বিনিময় ও সরাসরি আলোচনার সুযোগ, ইন্সটলেশন এবং সাপোর্টের ব্যবস্থা এবং সন্ধ্যেয় সংগঠনের ১ম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন আয়োজন। এছাড়াও অনুষ্ঠানস্থল থেকে ওপেনসোর্সড থ্রি-ডি গেমসহ লিনাক্স মিন্ট ১০ জুলিয়া’র সংকলিত ডিভিডি, মিন্ট ১১ ক্যাটিয়ার মূল সংস্করনের ডিভিডি, নপিক্স ৬.৭ এর সিডি এবং লিনাক্স ভিত্তিক বিভিন্ন ডিস্ট্রোর আইএসও পেনড্রাইভে কিংবা পছন্দের মিডিয়াতে সংগ্রহ ও ইন্সটল করিয়ে নেয়া যাবে।

অনুষ্ঠানের শিরোনামঃ “পেঙ্গুইন মেলা – ২০১২” – সিলেট বিভাগ।
তারিখ ও সময়ঃ ২৩শে ফেব্রুয়ারি ২০১২ইং, বৃহঃস্পতিবার। সকাল ১০:০০মিনিট থেকে সন্ধ্যে ৬:৩০ মিনিট
আয়োজন স্থলঃ সভাকক্ষ, মেট্রোপলিটন বিশ্ববিদ্যালয়, জিন্দাবাজার, সিলেট।
আয়োজকঃ ফাউন্ডেশন ফর ওপেন সোর্স সলিউশনস বাংলাদেশ।
আয়োজন সহযোগীঃ ইলেকট্রিক্যাল এন্ড ইলেকট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগ, মেট্রোপলিটন বিশ্ববিদ্যালয়, জিন্দাবাজার, সিলেট।

আয়োজনের বিস্তারিত সূচী:
১। সকাল ১০টায় আমন্ত্রিত অতিথিদের সাথে নিয়ে অনুষ্ঠানের উদ্বোধনী ঘোষনা করা হবে এবং সাথে কিছু স্বাগত বক্তব্য দেবেন আয়োজক এবং আমন্ত্রিত অতিথিবৃন্দ।
২। সকাল সাড়ে দশটা থেকে শুরু হয়ে দিনব্যাপী আয়োজনে বিভিন্ন ধরনের মুক্ত সফটওয়্যার ও লিনাক্স ডিস্ট্রোর ইতিহাস আর চিত্রসহ ডঙ্গল, ফেস্টুন, ব্যানার নিয়ে প্রদর্শনী চলবে।
৩। দিনব্যাপী এ আয়োজনে আরো থাকছে ”সফটওয়্যার মুক্তি আন্দোলন” ও বিভিন্ন মুক্ত সফটওয়্যার এবং লিনাক্স নিয়ে তথ্যভিত্তিক ভিডিও চিত্র প্রদর্শনী।
৪। থাকছে ”ইন্সটলেশন ও সাপোর্ট বুথ”। যেখানে আমাদের স্বেচ্ছাসেবকগণ আয়োজনে অংশগ্রহনকারীদের পছন্দ অনুসারে তাঁদের ল্যাপটপ কিংবা নেটবুকে লিনাক্স ভিত্তিক বিভিন্ন ডিস্ট্রো ইন্সটল এবং ইন্সটল পরবর্তী নিত্য প্রয়োজনীয় সেটিংসগুলো করে দেবেন। (অনলাইনে ফর্মপূরনকারীরা অগ্রাধিকার পাবেন।)
৫। এছাড়াও আয়োজনস্থলে থাকবে বিভিন্ন জনপ্রিয় লিনাক্স ডিস্ট্রোগুলোর পেনড্রাইভে, পছন্দের মিডিয়াতে এবং সিডি/ডিভিডিতে বিতরনের ব্যবস্থা। লিনাক্স মিন্ট ১০ জুলিয়া সংকলিত সংস্করন ডিভিডি — ৩০ টাকা, লিনাক্স মিন্ট ১১ ক্যাটিয়া মূল সংস্করন ডিভিডি — ২০ টাকা এবং নপিক্স ৬.৭ সিডি — ১০টাকা প্রতিটি।
৬। সন্ধ্যে ৬টা থেকে আয়োজিত হবে এফওএসএস বাংলাদেশ এর ১ম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষ্যে একটি ছোট্ট আলোচনা সভা এবং তৎপরবর্তী ছোট্ট একটি আনন্দ আয়োজন।

যেহেতু এই আয়োজনে সরাসরি লিনাক্স ডিস্ট্রো ইন্সটলেশন আর সাপোর্ট সেবা দেবার ব্যবস্থা থাকছে, তাই আগ্রহী সকলের জন্য এই সেবার নিশ্চয়তা নিশ্চিত করতে এখানে তথ্য দিন ও আপনার নাম নিবন্ধন করুন। এছাড়াও উন্মুক্ত এ আয়োজনে আগ্রহী যে কেউই আয়োজন স্থলে সরাসরি নিজের নাম নিবন্ধন করিয়ে নিয়ে অংশগ্রহন করতে পারবেন।

[বিঃদ্রঃ — অগ্রীম নাম নিবন্ধন ব্যতীত ইন্সটলেশন ও সাপোর্ট সেবা সুবিধাটুকু পাবার নিশ্চয়তা দেয়া সম্ভব হবে না। যদি এই অগ্রীম নিবন্ধিতজনদের সেবাপ্রদান শেষে আমাদের হাতে কিছু সময় অতিরিক্ত থাকে তো সেই সময়ে আপনাদের নাম নিবন্ধনের সময় অনুযায়ী পর্যায়ক্রমে সেবা পাবেন।]

আয়োজন পরবর্তী প্রতিবেদন:

সকাল দশটায় আয়োজনের উদ্বোধন করে মেট্রোপলিটন বিশ্ববিদ্যালয়ের তড়িৎ প্রকৌশল বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক চৌধুরী মোকাম্মেল ওয়াহিদ, মুক্তপ্রযুক্তি ও চোরাই সফটওয়্যারের বিষয়ে উপস্থিত ছাত্রদের মাঝে সচেতনতা সৃষ্টি এবং ”পেঙ্গুইন মেলা”র বিষয়ে বক্তব্য দেন। সকাল সাড়ে দশটায় লিনাক্স মিন্ট ইন্সটল করার বিষয়ে উপস্থিত দর্শকের ডেমো দেখান ডঃ মিয়া মোহাম্মদ হুসাইনুজ্জামান শামীম এবং সালেহ আহমেদ। এর পরপরই জিএনইউ প্রজেক্ট, মুক্ত সফটওয়্যারের প্রয়োজনীয়তা, লিনাক্স এবং এই আন্দোলনের শুরুর দিককার কথা নিয়ে দর্শকদের সাথে মুক্ত আলোচনায় অংশ নেন সাজেদুর রহিম জোয়ারদার। বিকাল সাড়ে তিনটা থেকে লিব্রে অফিস এবং লিব্রে ক্যাড বিষয়ে সরাসরি কাজের মাধ্যমে আলোচনা করেন ডঃ মিয়া মোহাম্মদ হুসাইনুজ্জামান শামীম। বিকাল সাড়ে পাঁচটা থেকে শুরু হয় দর্শকের সাথে সরাসরি প্রশ্নোত্তর পর্ব।

দিনব্যাপী এই আয়োজনে ছিলো ”লিনাক্স ডিস্ট্রো ইন্সটলেশন এবং সাপোর্ট বুথ”, বিভিন্ন ধরনের মুক্ত সফটওয়্যার আর লিনাক্স ডিস্ট্রোর ইতিহাস আর চিত্রসহ ডঙ্গল, ফেস্টুন, ব্যানারের প্রদর্শনী এবং ওপেনসোর্সড থ্রি-ডি গেমসহ লিনাক্স মিন্ট ১০ জুলিয়া’র সংকলিত এবং মিন্ট ১১ ক্যাটিয়ার মূল সংস্করনের ডিভিডি, নপিক্স ৬.৭ সিডি এবং লিনাক্স ভিত্তিক বিভিন্ন ডিস্ট্রোর আইএসও পেনড্রাইভে কিংবা পছন্দের মিডিয়াতে সংগ্রহের ব্যবস্থা।

সন্ধ্যে ছয়টায় কেক কেটে এবং উপস্থিত দর্শক শ্রোতাদেরকে আপ্যায়নের মাধ্যমে ফাউন্ডেশন ফর ওপেন সোর্স সলিউশনস বাংলাদেশ এর প্রথম বর্ষপূর্তি উদযাপন করা হয়।

আয়োজনের কিছু ছবি দেখুন এখানে

যেসব ব্লগ ও ফোরামে এই আয়োজনের সংবাদ পাবেন — শামীম ভাইয়ের ব্যক্তিগত ব্লগ (খিচুড়ী ব্লগ), প্রজন্ম ফোরাম , টেকটিউনস, আড্ডার আসর, রংমহল, আইটেক বাংলা, রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজের বাংলা ফোরাম (আরএমসি ফোরাম), লিনাক্সদেশ ফোরাম, রংধনু এবং ডিজিটাল দুনিয়া‘য়।

Posted in খেয়াল করুন, জেনে রাখুন, দেশ ও জাতির প্রতি দ্বায়বদ্ধতা, প্রযুক্তি নিয়ে আউলা চিন্তা, ভালো লাগা, ভালোবাসা

“পেঙ্গুইন মেলা – ২০১১” – ইউআইইউ’র আয়োজন


দেশকে সফটওয়্যার পাইরেসীর কলংক থেকে মুক্তি দিতে ও গ্লানি মুক্ত করে মাথা উঁচু করে দাঁড়াতে হলে দামী সফটওয়্যার চুরির মনোবাসনা আমাদের সবাইকেই পরিত্যাগ করতে হবে। বাংলাদেশের বর্তমান অর্থ-সামাজিক অবস্থার পরিপ্রেক্ষিতে সকল ছাত্র-জনতার পক্ষে দামী সব সফটওয়্যার ক্রয় করে ব্যবহার করা সম্ভব নয়। তাই এর বিকল্প হল ওপেন সোর্স এবং ফ্রী সফটওয়্যারগুলো। উন্মুক্ত বা ওপেনসোর্স সফটওয়্যারের সুবিধা হল এর উৎসের কোডগুলো সকলে দেখতে পারে, ফলে লুকিয়ে কোন ক্ষতিকারক প্রোগ্রাম এতে দেয়া আছে কি না তা সহজেই বের করা যায়, যা নিরাপত্তার জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এছাড়া সোর্সকোড উন্মুক্ত বলে আগ্রহী শিক্ষার্থী ও প্রযুক্তিবিদগণও এ থেকে অত্যন্ত উপকৃত হতে পারেন। উন্মুক্ত সোর্স আর মুক্ত সফটওয়্যার বিশ্বের যে কোন প্রান্ত থেকে যে কেউ মানোন্নয়ন করতে পারেন আর এজন্য এগুলো খুব দ্রুতই উন্নত আর ব্যবহারবান্ধব হয়ে ওঠে। দেশকে পাইরেসীর গ্লানি ও কলংক মুক্ত করার একটা ক্ষুদ্র প্রয়াস হিসেবে ফাউন্ডেশন ফর ওপেন সোর্স সলিউশনস বাংলাদেশ বা FOSS Bangladesh (এফওএসএস বাংলাদেশ), দেশে মুক্ত সফটওয়্যার প্রসারের লক্ষ্যে গঠিত স্বেচ্ছাসেবী একটা সংগঠন।

এই সংগঠন এর বিভিন্ন কার্যক্রমের মধ্যে নিয়মিতভাবেই জনসচেতনতামূলক অনুষ্ঠানের আয়োজন করে থাকে। খুলনা, রাজশাহী, ঢাকা, রংপুর ও সিলেট বিভাগের পরে এবার এরই ধারাবাহিকতায় জেলা ভিত্তিক আয়োজন করা হচ্ছে “পেঙ্গুইন মেলা – ২০১১”। বর্তমানে এ কার্যক্রম চলছে ঢাকা জেলায়। শীঘ্রই দেশের অন্যান্য জেলায় এ অনুষ্ঠানটি আয়োজন করা হবে।

দূর্নীতির গ্লানিমুক্ত, উন্মুক্ত সোর্স ও মুক্ত প্রযুক্তি নির্ভর, সুখী-সমৃদ্ধ, স্বনির্ভর ও সম্মানজনক বাংলাদেশ গড়ার প্রত্যয়ে ফাউন্ডেশন ফর ওপেন সোর্স সলিউশনস বাংলাদেশ (এফওএসএস বাংলাদেশ) ৭ই আগষ্ট, রবিবার সকাল ১০:৩০মিনিট থেকে দুপুর ১৩:৩০মিনিট পর্যন্ত ঢাকার ধানমন্ডির রোড নং-৮/এ তে অবস্থিত ইউনাইটেড ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি এর মিলনায়তনে উন্মুক্ত সফটওয়্যার ব্যবহারের প্রয়োজনীয়তা এবং উপকারীতা নিয়ে একটি জনসচেতনতামূলক অনুষ্ঠান “পেঙ্গুইন মেলা – ২০১১”র আয়োজন করতে যাচ্ছে। আয়োজনে সহযোগীতা করছে ইউনাইটেড ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি কম্পিউটার ক্লাব।

আয়োজনের বিস্তারিত :

অনুষ্ঠানের শিরোনাম : “পেঙ্গুইন মেলা – ২০১১” – ইউনাইটেড ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি
তারিখ : ৭ই আগষ্ট ২০১১ইং, রোজ রবিবার, সকাল ১০:৩০মিনিট থেকে দুপুর ১৩:৩০ মিনিট
স্থান : ইউনাইটেড ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি, ধানমন্ডি, ঢাকা।
আয়োজক : ফাউন্ডেশন ফর ওপেন সোর্স সলিউশনস বাংলাদেশ
সহযোগীতায় : ইউনাইটেড ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি কম্পিউটার ক্লাব।

অনুষ্ঠানসূচীঃ (মোট ৩ ঘন্টা)
* লিনাক্স পরিচিতি, ইনস্টলেশন ও ব্যবহার
(দুপুর ২:০০মিনিট থেকে বিকাল ৩:৩০ মিনিট)
o মুক্তসোর্স ও লিনাক্স পরিচিতি — ৩০ মিনিট
o লিনাক্স মিন্ট পরিচিতি — ৩০ মিনিট
o লিনাক্স মিন্ট ইন্সটল ও কনফিগার করা — ৩০ মিনিট
* চা-বিরতি — ১০ মিনিট
* লিনাক্স ব্যবহার করতে গিয়ে উদ্ভূত বিভিন্ন সমস্যার সমাধান
(বিকাল ৩:৪০মিনিট থেকে বিকাল ৫:০০ মিনিট)
o উপস্থিত দর্শকদের অংশগ্রহনে আলোচনা — ৪০ মিনিট
o প্রশ্নোত্তর ও বিভিন্ন সমস্যার সমাধান — ৪০ মিনিট

উক্ত অনুষ্ঠানে পাইরেসি, ওপেনসোর্স ও লিনাক্স বিষয়ে আলোচনার পাশাপাশি আগত দর্শকদের সাথে সরাসরি মতামত বিনিময় ও আলোচনার সুযোগ রয়েছে। এছাড়া অনুষ্ঠানস্থল থেকে ওপেনসোর্সড থ্রি-ডি গেমসহ লিনাক্স মিন্ট ১০ জুলিয়া’র সংকলিত ডিভিডি (প্রতিটি ডিভিডি ৫০ টাকা মাত্র) সহ লিনাক্স ভিত্তিক আরো নানান ডিস্ট্রোর আইএসও পেনড্রাইভ সহ পছন্দের মিডিয়ায় সংগ্রহ করা যাবে। উন্মুক্ত এ আয়োজনে আগ্রহী যে কেউ এই অংশগ্রহণ করতে পারবেন।

যেসব ব্লগ ও ফোরামে এই আয়োজনের সংবাদ পাবেন — শামীম ভাইয়ের ব্যক্তিগত ব্লগ (খিচুড়ী ব্লগ), প্রজন্ম ফোরাম , আমাদের প্রযুক্তি, টেকটিউনস, আড্ডার আসর, রংমহল, আইটেক বাংলা, রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজের বাংলা ফোরাম (আরএমসি ফোরাম), লিনাক্সদেশ ফোরাম, রংধনু এবং ডিজিটাল দুনিয়া‘য়।

আপডেট: আয়োজনের কিছু ছবি

Posted in খেয়াল করুন, জেনে রাখুন, দেশ ও জাতির প্রতি দ্বায়বদ্ধতা, প্রযুক্তি নিয়ে আউলা চিন্তা, ভালো লাগা, ভালোবাসা

“পেঙ্গুইন মেলা – ২০১১” – এইউবি’র আয়োজন


দেশকে সফটওয়্যার পাইরেসীর কলংক থেকে মুক্তি দিতে ও গ্লানি মুক্ত করে মাথা উঁচু করে দাঁড়াতে হলে দামী সফটওয়্যার চুরির মনোবাসনা আমাদের সবাইকেই পরিত্যাগ করতে হবে। বাংলাদেশের বর্তমান অর্থ-সামাজিক অবস্থার পরিপ্রেক্ষিতে সকল ছাত্র-জনতার পক্ষে দামী সব সফটওয়্যার ক্রয় করে ব্যবহার করা সম্ভব নয়। তাই এর বিকল্প হল ওপেন সোর্স এবং ফ্রী সফটওয়্যারগুলো। উন্মুক্ত বা ওপেনসোর্স সফটওয়্যারের সুবিধা হল এর উৎসের কোডগুলো সকলে দেখতে পারে, ফলে লুকিয়ে কোন ক্ষতিকারক প্রোগ্রাম এতে দেয়া আছে কি না তা সহজেই বের করা যায়, যা নিরাপত্তার জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এছাড়া সোর্সকোড উন্মুক্ত বলে আগ্রহী শিক্ষার্থী ও প্রযুক্তিবিদগণও এ থেকে অত্যন্ত উপকৃত হতে পারেন। উন্মুক্ত সোর্স আর মুক্ত সফটওয়্যার বিশ্বের যে কোন প্রান্ত থেকে যে কেউ মানোন্নয়ন করতে পারেন আর এজন্য এগুলো খুব দ্রুতই উন্নত আর ব্যবহারবান্ধব হয়ে ওঠে। দেশকে পাইরেসীর গ্লানি ও কলংক মুক্ত করার একটা ক্ষুদ্র প্রয়াস হিসেবে ফাউন্ডেশন ফর ওপেন সোর্স সলিউশনস বাংলাদেশ বা FOSS Bangladesh (এফওএসএস বাংলাদেশ), দেশে মুক্ত সফটওয়্যার প্রসারের লক্ষ্যে গঠিত স্বেচ্ছাসেবী একটা সংগঠন।

এই সংগঠন এর বিভিন্ন কার্যক্রমের মধ্যে নিয়মিতভাবেই জনসচেতনতামূলক অনুষ্ঠানের আয়োজন করে থাকে। খুলনা, রাজশাহী, ঢাকা, রংপুর ও সিলেট বিভাগের পরে এবার এরই ধারাবাহিকতায় জেলা ভিত্তিক আয়োজন করা হচ্ছে “পেঙ্গুইন মেলা – ২০১১”। বর্তমানে এ কার্যক্রম চলছে ঢাকা জেলায়। শীঘ্রই দেশের অন্যান্য জেলায় এ অনুষ্ঠানটি আয়োজন করা হবে।

দূর্নীতির গ্লানিমুক্ত, উন্মুক্ত সোর্স ও মুক্ত প্রযুক্তি নির্ভর, সুখী-সমৃদ্ধ, স্বনির্ভর ও সম্মানজনক বাংলাদেশ গড়ার প্রত্যয়ে ফাউন্ডেশন ফর ওপেন সোর্স সলিউশনস বাংলাদেশ (এফওএসএস বাংলাদেশ) ২৭শে জুলাই, বুধবার দুপুর ২টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত ঢাকার উত্তরায় সেক্টর-৭, রোড নং-৫, বাড়ী নং-৯ এ অবস্থিত এশিয়ান ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ এর আয়েশা মিলনায়তনে উন্মুক্ত সফটওয়্যার ব্যবহারের প্রয়োজনীয়তা এবং উপকারীতা নিয়ে একটি জনসচেতনতামূলক অনুষ্ঠান “পেঙ্গুইন মেলা – ২০১১”র আয়োজন করতে যাচ্ছে। আয়োজনে সহযোগীতা করছে এশিয়ান ইউনিভার্সিটি কম্পিউটার ক্লাব।

আয়োজনের বিস্তারিত :

অনুষ্ঠানের শিরোনাম : “পেঙ্গুইন মেলা – ২০১১” – এশিয়ান ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ
তারিখ : ২৭শে জুলাই ২০১১ইং, রোজ বুধবার, দুপুর ২:০০মিনিট থেকে বিকাল ৫:০০ মিনিট
স্থান : আয়েশা মিলনায়তন, এশিয়ান ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ, উত্তরা, ঢাকা।
আয়োজক : ফাউন্ডেশন ফর ওপেন সোর্স সলিউশনস বাংলাদেশ
সহযোগীতায় : এশিয়ান ইউনিভার্সিটি কম্পিউটার ক্লাব।

অনুষ্ঠানসূচীঃ (মোট ৩ ঘন্টা)
* লিনাক্স পরিচিতি, ইনস্টলেশন ও ব্যবহার
(দুপুর ২:০০মিনিট থেকে বিকাল ৩:৩০ মিনিট)
o মুক্তসোর্স ও লিনাক্স পরিচিতি — ৩০ মিনিট
o লিনাক্স মিন্ট পরিচিতি — ৩০ মিনিট
o লিনাক্স মিন্ট ইন্সটল ও কনফিগার করা — ৩০ মিনিট
* চা-বিরতি — ১০ মিনিট
* লিনাক্স ব্যবহার করতে গিয়ে উদ্ভূত বিভিন্ন সমস্যার সমাধান
(বিকাল ৩:৪০মিনিট থেকে বিকাল ৫:০০ মিনিট)
o উপস্থিত দর্শকদের অংশগ্রহনে আলোচনা — ৪০ মিনিট
o প্রশ্নোত্তর ও বিভিন্ন সমস্যার সমাধান — ৪০ মিনিট

উক্ত অনুষ্ঠানে পাইরেসি, ওপেনসোর্স ও লিনাক্স বিষয়ে আলোচনার পাশাপাশি আগত দর্শকদের সাথে সরাসরি মতামত বিনিময় ও আলোচনার সুযোগ রয়েছে। এছাড়া অনুষ্ঠানস্থল থেকে ওপেনসোর্সড থ্রি-ডি গেমসহ লিনাক্স মিন্ট ১০ জুলিয়া’র সংকলিত ডিভিডি (প্রতিটি ডিভিডি ৫০ টাকা মাত্র) সহ লিনাক্স ভিত্তিক আরো নানান ডিস্ট্রোর আইএসও পেনড্রাইভ সহ পছন্দের মিডিয়ায় সংগ্রহ করা যাবে। উন্মুক্ত এ আয়োজনে আগ্রহী যে কেউ এই অংশগ্রহণ করতে পারবেন।

যেসব ব্লগ ও ফোরামে এই আয়োজনের সংবাদ পাবেন — শামীম ভাইয়ের ব্যক্তিগত ব্লগ (খিচুড়ী ব্লগ), প্রজন্ম ফোরাম , আমাদের প্রযুক্তি, টেকটিউনস, আড্ডার আসর, রংমহল, আইটেক বাংলা, রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজের বাংলা ফোরাম (আরএমসি ফোরাম) এবং ডিজিটাল দুনিয়া‘য়।

আপডেট: আয়োজনের কিছু ছবি

Posted in খেয়াল করুন, জেনে রাখুন, দেশ ও জাতির প্রতি দ্বায়বদ্ধতা, প্রযুক্তি নিয়ে আউলা চিন্তা, ভালো লাগা, ভালোবাসা

“পেঙ্গুইন মেলা – ২০১১” – ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়


দেশকে সফটওয়্যার পাইরেসীর কলংক থেকে মুক্তি দিতে ও গ্লানি মুক্ত করে মাথা উঁচু করে দাঁড়াতে হলে দামী সফটওয়্যার চুরির মনোবাসনা আমাদের সবাইকেই পরিত্যাগ করতে হবে। বাংলাদেশের বর্তমান অর্থ-সামাজিক অবস্থার পরিপ্রেক্ষিতে সকল ছাত্র-জনতার পক্ষে দামী সব সফটওয়্যার ক্রয় করে ব্যবহার করা সম্ভব নয়। তাই এর বিকল্প হল ওপেন সোর্স এবং ফ্রী সফটওয়্যারগুলো। উন্মুক্ত বা ওপেনসোর্স সফটওয়্যারের সুবিধা হল এর উৎসের কোডগুলো সকলে দেখতে পারে, ফলে লুকিয়ে কোন ক্ষতিকারক প্রোগ্রাম এতে দেয়া আছে কি না তা সহজেই বের করা যায়, যা নিরাপত্তার জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এছাড়া সোর্সকোড উন্মুক্ত বলে আগ্রহী শিক্ষার্থী ও প্রযুক্তিবিদগণও এ থেকে অত্যন্ত উপকৃত হতে পারেন। উন্মুক্ত সোর্স আর মুক্ত সফটওয়্যার বিশ্বের যে কোন প্রান্ত থেকে যে কেউ মানোন্নয়ন করতে পারেন আর এজন্য এগুলো খুব দ্রুতই উন্নত আর ব্যবহারবান্ধব হয়ে ওঠে। দেশকে পাইরেসীর গ্লানি ও কলংক মুক্ত করার একটা ক্ষুদ্র প্রয়াস হিসেবে ফাউন্ডেশন ফর ওপেন সোর্স সলিউশনস বাংলাদেশ বা FOSS Bangladesh (এফওএসএস বাংলাদেশ), দেশে মুক্ত সফটওয়্যার প্রসারের লক্ষ্যে গঠিত স্বেচ্ছাসেবী একটা সংগঠন।

এই সংগঠন এর বিভিন্ন কার্যক্রমের মধ্যে নিয়মিতভাবেই জনসচেতনতামূলক অনুষ্ঠানের আয়োজন করে থাকে। খুলনা, রাজশাহী, ঢাকা, রংপুর ও সিলেট বিভাগের পরে এবার এরই ধারাবাহিকতায় জেলা ভিত্তিক আয়োজন করা হচ্ছে “পেঙ্গুইন মেলা – ২০১১”। বর্তমানে এ কার্যক্রম চলছে ঢাকা জেলায়। শীঘ্রই দেশের অন্যান্য জেলায় এ অনুষ্ঠানটি আয়োজন করা হবে।

দূর্নীতির গ্লানিমুক্ত, উন্মুক্ত সোর্স ও মুক্ত প্রযুক্তি নির্ভর, সুখী-সমৃদ্ধ, স্বনির্ভর ও সম্মানজনক বাংলাদেশ গড়ার প্রত্যয়ে ফাউন্ডেশন ফর ওপেন সোর্স সলিউশনস বাংলাদেশ (এফওএসএস বাংলাদেশ) আগামী ২০শে জুলাই, বুধবার দুপুর ২টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত ঢাকার মহাখালীতে অবস্থিত ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের মিলনায়তনে উন্মুক্ত সফটওয়্যার ব্যবহারের প্রয়োজনীয়তা এবং উপকারীতা নিয়ে একটি জনসচেতনতামূলক অনুষ্ঠান “পেঙ্গুইন মেলা – ২০১১”র আয়োজন করতে যাচ্ছে। আয়োজনে সহযোগীতা করছে ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার ক্লাব।

আয়োজনের বিস্তারিত :

অনুষ্ঠানের শিরোনাম : “পেঙ্গুইন মেলা – ২০১১” – ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়
তারিখ : ২০শে জুলাই ২০১১ইং, রোজ বুধবার, দুপুর ২:০০মিনিট থেকে বিকাল ৫:০০ মিনিট
স্থান : ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয় মিলনায়তন, ৬৬ মহাখালী, ঢাকা।
আয়োজক : ফাউন্ডেশন ফর ওপেন সোর্স সলিউশনস বাংলাদেশ
সহযোগীতায় : ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার ক্লাব।

অনুষ্ঠানসূচীঃ (মোট ৩ ঘন্টা)
* লিনাক্স পরিচিতি, ইনস্টলেশন ও ব্যবহার
(দুপুর ২:০০মিনিট থেকে বিকাল ৩:৩০ মিনিট)
o লিনাক্স পরিচিতি — ৩০ মিনিট
o লিনাক্স মিন্ট পরিচিতি — ৩০ মিনিট
o লিনাক্স মিন্ট ইন্সটল ও কনফিগার করা — ৩০ মিনিট
* চা-বিরতি — ১০ মিনিট
* লিনাক্স ব্যবহার করতে গিয়ে উদ্ভূত বিভিন্ন সমস্যার সমাধান
(বিকাল ৩:৪০মিনিট থেকে বিকাল ৫:০০ মিনিট)
o উপস্থিত দর্শকদের অংশগ্রহনে আলোচনা — ৪০ মিনিট
o প্রশ্নোত্তর ও বিভিন্ন সমস্যার সমাধান — ৪০ মিনিট

উক্ত অনুষ্ঠানে পাইরেসি, ওপেনসোর্স ও লিনাক্স বিষয়ে আলোচনার পাশাপাশি আগত দর্শকদের সাথে সরাসরি মতামত বিনিময় ও আলোচনার সুযোগ রয়েছে। এছাড়া অনুষ্ঠানস্থল থেকে ওপেনসোর্সড থ্রি-ডি গেমসহ লিনাক্স মিন্ট ১০ জুলিয়া’র সংকলিত ডিভিডি (প্রতিটি ডিভিডি ৫০ টাকা মাত্র) সহ লিনাক্স ভিত্তিক আরো নানান ডিস্ট্রোর আইএসও পেনড্রাইভ সহ পছন্দের মিডিয়ায় সংগ্রহ করা যাবে। উন্মুক্ত এ আয়োজনে আগ্রহী যে কেউ এই অংশগ্রহণ করতে পারবেন।

যেসব ব্লগ ও ফোরামে এই আয়োজনের সংবাদ পাবেন — শামীম ভাইয়ের ব্যক্তিগত ব্লগ (খিচুড়ী ব্লগ), প্রজন্ম ফোরাম , আমাদের প্রযুক্তি, টেকটিউনস, আড্ডার আসর, রংমহল, আইটেক বাংলা, রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজের বাংলা ফোরাম (আরএমসি ফোরাম) এবং ডিজিটাল দুনিয়ায়।

আপডেট: আয়োজনের কিছু ছবি

Posted in খেয়াল করুন, জেনে রাখুন, দেশ ও জাতির প্রতি দ্বায়বদ্ধতা, প্রযুক্তি নিয়ে আউলা চিন্তা, ভালো লাগা, ভালোবাসা

“পেঙ্গুইন মেলা – ২০১১” সিলেট বিভাগ


দেশকে সফটওয়্যার পাইরেসীর কলংক থেকে মুক্তি দিতে ও গ্লানি মুক্ত করে মাথা উঁচু করে দাঁড়াতে হলে দামী সফটওয়্যার চুরির মনোবাসনা আমাদের সবাইকেই পরিত্যাগ করতে হবে। বাংলাদেশের বর্তমান অর্থ-সামাজিক অবস্থার পরিপ্রেক্ষিতে সকল ছাত্র-জনতার পক্ষে দামী সব সফটওয়্যার ক্রয় করে ব্যবহার করা সম্ভব নয়। তাই এর বিকল্প হল ওপেন সোর্স এবং ফ্রী সফটওয়্যারগুলো। উন্মুক্ত বা ওপেনসোর্স সফটওয়্যারের সুবিধা হল এর উৎসের কোডগুলো সকলে দেখতে পারে, ফলে লুকিয়ে কোন ক্ষতিকারক প্রোগ্রাম এতে দেয়া আছে কি না তা সহজেই বের করা যায়, যা নিরাপত্তার জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এছাড়া সোর্সকোড উন্মুক্ত বলে আগ্রহী শিক্ষার্থী ও প্রযুক্তিবিদগণও এ থেকে অত্যন্ত উপকৃত হতে পারেন। উন্মুক্ত সোর্স আর মুক্ত সফটওয়্যার বিশ্বের যে কোন প্রান্ত থেকে যে কেউ মানোন্নয়ন করতে পারেন আর এজন্য এগুলো খুব দ্রুতই উন্নত আর ব্যবহারবান্ধব হয়ে ওঠে। দেশকে পাইরেসীর গ্লানি ও কলংক মুক্ত করার একটা ক্ষুদ্র প্রয়াস হিসেবে ফাউন্ডেশন ফর ওপেন সোর্স সলিউশনস বাংলাদেশ বা FOSS Bangladesh (এফওএসএস বাংলাদেশ), দেশে মুক্ত সফটওয়্যার প্রসারের লক্ষ্যে গঠিত স্বেচ্ছাসেবী একটা সংগঠন।

এই সংগঠন এর বিভিন্ন কার্যক্রমের মধ্যে নিয়মিতভাবেই জনসচেতনতামূলক অনুষ্ঠানের আয়োজন করে থাকে। খুলনা, রাজশাহী, ঢাকা ও রংপুর বিভাগের পরে এবার এরই ধারাবাহিকতায় সিলেট বিভাগে আয়োজন করা হচ্ছে “পেঙ্গুইন মেলা – ২০১১”। দূর্নীতির গ্লানিমুক্ত, উন্মুক্ত সোর্স ও মুক্ত প্রযুক্তি নির্ভর, সুখী-সমৃদ্ধ, স্বনির্ভর ও সম্মানজনক বাংলাদেশ গড়ার প্রত্যয়ে ফাউন্ডেশন ফর ওপেন সোর্স সলিউশনস বাংলাদেশ (এফওএসএস বাংলাদেশ) আগামী ১৫ই জুলাই, শুক্রবার বিকাল ৩টায় সিলেটের জিন্দাবাজারে অবস্থিত মেট্রোপলিটান বিশ্ববিদ্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে উন্মুক্ত সফটওয়্যার ব্যবহারের উপকারীতা নিয়ে একটি জনসচেতনতামূলক অনুষ্ঠান “পেঙ্গুইন মেলা – ২০১১”র আয়োজন করতে যাচ্ছে। আয়োজনে সহযোগীতা করছে মেট্রোপলিটান বিশ্ববিদ্যালয়ের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ।

আয়োজনের বিস্তারিত :

অনুষ্ঠানের শিরোনাম : “পেঙ্গুইন মেলা – ২০১১” সিলেট বিভাগ
তারিখ : ১৫ই জুলাই ২০১১ইং, রোজ শুক্রবার, বিকাল ৩:৩০মিনিট থেকে সন্ধ্যে ৬:৩০ মিনিট
স্থান : মেট্রোপলিটান বিশ্ববিদ্যালয়ের সম্মেলন কক্ষ
আয়োজক : ফাউন্ডেশন ফর ওপেন সোর্স সলিউশনস বাংলাদেশ
সহযোগীতায় : মেট্রোপলিটান বিশ্ববিদ্যালয়ের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ।

অনুষ্ঠানসূচীঃ (মোট ৩ ঘন্টা)
* লিনাক্স পরিচিতি, ইনস্টলেশন ও ব্যবহার
(বিকাল ৩:৩০মিনিট থেকে সন্ধ্যে ৫:০০ মিনিট)
o লিনাক্স পরিচিতি — ৩০ মিনিট
o লিনাক্স মিন্ট পরিচিতি — ৩০ মিনিট
o লিনাক্স মিন্ট ইন্সটল ও কনফিগার করা — ৩০ মিনিট
* চা-বিরতি — ৩০ মিনিট
* লিনাক্স ব্যবহার করতে গিয়ে উদ্ভূত বিভিন্ন সমস্যার সমাধান
(বিকাল ৫:৩০মিনিট থেকে সন্ধ্যে ৬:৩০ মিনিট)
o উপস্থিত দর্শকদের অংশগ্রহনে আলোচনা — ৩০ মিনিট
o প্রশ্নোত্তর ও বিভিন্ন সমস্যার সমাধান — ৩০ মিনিট

উক্ত অনুষ্ঠানে পাইরেসি, ওপেনসোর্স ও লিনাক্স বিষয়ে আলোচনার পাশাপাশি আগত দর্শকদের সাথে সরাসরি মতামত বিনিময় ও আলোচনার সুযোগ রয়েছে। এছাড়া অনুষ্ঠানস্থল থেকে ওপেনসোর্সড থ্রি-ডি গেমসহ লিনাক্স মিন্ট ১০ জুলিয়া’র সংকলিত ডিভিডি (প্রতিটি ডিভিডি ৫০ টাকা মাত্র) সংগ্রহ করা যাবে। ২০ টাকা রেজিস্ট্রেশন ফি দিয়ে অনুষ্ঠানের দিন অনুষ্ঠান স্থলেই রেজিষ্ট্রেশন করার মাধ্যমে আগ্রহী যে কেউ এই অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করতে পারবেন।

যেসব ব্লগ ও ফোরামে এই আয়োজনের সংবাদ পাবেন — শামীম ভাইয়ের ব্যক্তিগত ব্লগ (খিচুড়ী ব্লগ), প্রজন্ম ফোরাম , আমাদের প্রযুক্তি, টেকটিউনস, আড্ডার আসর, আইটেক বাংলা, রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজের বাংলা ফোরাম (আরএমসি ফোরাম) এবং ডিজিটাল দুনিয়ায়।

আপডেট: আয়োজনের কিছু ছবি

Posted in খেয়াল করুন, জেনে রাখুন, দেশ ও জাতির প্রতি দ্বায়বদ্ধতা, প্রযুক্তি নিয়ে আউলা চিন্তা, ভালো লাগা, ভালোবাসা

“পেঙ্গুইন মেলা – ২০১১” রংপুর বিভাগের আয়োজন


দেশকে সফটওয়্যার পাইরেসীর কলংক থেকে মুক্তি দিতে ও গ্লানি মুক্ত করে মাথা উঁচু করে দাঁড়াতে হলে দামী সফটওয়্যার চুরির মনোবাসনা আমাদের সবাইকেই পরিত্যাগ করতে হবে। বাংলাদেশের বর্তমান অর্থ-সামাজিক অবস্থার পরিপ্রেক্ষিতে সকল ছাত্র-জনতার পক্ষে দামী সব সফটওয়্যার ক্রয় করে ব্যবহার করা সম্ভব নয়। তাই এর বিকল্প হল ওপেন সোর্স এবং ফ্রী সফটওয়্যারগুলো। উন্মুক্ত বা ওপেনসোর্স সফটওয়্যারের সুবিধা হল এর উৎসের কোডগুলো সকলে দেখতে পারে, ফলে লুকিয়ে কোন ক্ষতিকারক প্রোগ্রাম এতে দেয়া আছে কি না তা সহজেই বের করা যায়, যা নিরাপত্তার জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এছাড়া সোর্সকোড উন্মুক্ত বলে আগ্রহী শিক্ষার্থী ও প্রযুক্তিবিদগণও এ থেকে অত্যন্ত উপকৃত হতে পারেন। উন্মুক্ত সোর্স আর মুক্ত সফটওয়্যার বিশ্বের যে কোন প্রান্ত থেকে যে কেউ মানোন্নয়ন করতে পারেন আর এজন্য এগুলো খুব দ্রুতই উন্নত আর ব্যবহারবান্ধব হয়ে ওঠে। দেশকে পাইরেসীর গ্লানি ও কলংক মুক্ত করার একটা ক্ষুদ্র প্রয়াস হিসেবে ফাউন্ডেশন ফর ওপেন সোর্স সলিউশনস বাংলাদেশ বা FOSS Bangladesh, দেশে মুক্ত সফটওয়্যার প্রসারের লক্ষ্যে গঠিত স্বেচ্ছাসেবী একটা সংগঠন।

এই সংগঠন এর বিভিন্ন কার্যক্রমের মধ্যে নিয়মিতভাবেই জনসচেতনতামূলক অনুষ্ঠানের আয়োজন করে থাকে। খুলনা, রাজশাহী ও ঢাকা বিভাগের পরে এবার এরই ধারাবাহিকতায় রংপুরে আয়োজন করা হচ্ছে “পেঙ্গুইন মেলা – ২০১১”। দূর্নীতির গ্লানিমুক্ত, উন্মুক্ত সোর্স ও মুক্ত প্রযুক্তি নির্ভর, সুখী-সমৃদ্ধ, স্বনির্ভর ও সম্মানজনক বাংলাদেশ গড়ার প্রত্যয়ে ফাউন্ডেশন ফর ওপেন সোর্স সলিউশনস বাংলাদেশ (FOSS Bangladesh) আগামী ২২শে এপ্রিল, শুক্রবার বিকাল ৩টায় হাজী দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের মিলনায়তন-২ তে উন্মুক্ত সফটওয়্যার ব্যবহারের উপকারীতা নিয়ে একটি জনসচেতনতামূলক অনুষ্ঠান “পেঙ্গুইন মেলা – ২০১১”র আয়োজন করতে যাচ্ছে। আয়োজনে সহযোগীতা করছে হাজী দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ওপেন সোর্স নেটওয়ার্ক।

আয়োজনের বিস্তারিত :

অনুষ্ঠানের শিরোনাম : “পেঙ্গুইন মেলা – ২০১১” রংপুর বিভাগ
তারিখ : ২২ শে এপ্রিল ২০১১ইং, রোজ শুক্রবার, বিকাল ৩:৩০মিনিট থেকে সন্ধ্যে ৬:৩০ মিনিট
স্থান : হাজী দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের মিলনায়তন-২
আয়োজক : ফাউন্ডেশন ফর ওপেন সোর্স সলিউশনস বাংলাদেশ
সহযোগীতায় : হাজী দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ওপেন সোর্স নেটওয়ার্ক।

অনুষ্ঠানসূচীঃ (মোট ৩ ঘন্টা)
* লিনাক্স পরিচিতি, ইনস্টলেশন ও ব্যবহার
(বিকাল ৩:৩০মিনিট থেকে সন্ধ্যে ৫:০০ মিনিট)
o লিনাক্স পরিচিতি — ৩০ মিনিট
o লিনাক্স মিন্ট পরিচিতি — ৩০ মিনিট
o লিনাক্স মিন্ট ইন্সটল ও কনফিগার করা — ৩০ মিনিট
* চা-বিরতি — ৩০ মিনিট
* লিনাক্স ব্যবহার করতে গিয়ে উদ্ভূত বিভিন্ন সমস্যার সমাধান
(বিকাল ৫:৩০মিনিট থেকে সন্ধ্যে ৬:৩০ মিনিট)
o উপস্থিত দর্শকদের অংশগ্রহনে আলোচনা — ৩০ মিনিট
o প্রশ্নোত্তর ও বিভিন্ন সমস্যার সমাধান — ৩০ মিনিট

উক্ত অনুষ্ঠানে পাইরেসি, ওপেনসোর্স ও লিনাক্স বিষয়ে আলোচনার পাশাপাশি আগত দর্শকদের সাথে সরাসরি মতামত বিনিময় ও আলোচনার সুযোগ রয়েছে। এছাড়া অনুষ্ঠানস্থল থেকে ওপেনসোর্সড থ্রি-ডি গেমসহ লিনাক্স মিন্ট ১০ জুলিয়া’র সংকলিত ডিভিডি (প্রতিটি ডিভিডি ৫০ টাকা মাত্র) সংগ্রহ করা যাবে। ২০ টাকা রেজিস্ট্রেশন ফি দিয়ে অনুষ্ঠানের দিন অনুষ্ঠান স্থলেই রেজিষ্ট্রেশন করার মাধ্যমে আগ্রহী যে কেউ এই অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করতে পারবেন।

যেসব ব্লগ ও ফোরামে এই আয়োজনের সংবাদ পাবেন — শামীম ভাইয়ের ব্যক্তিগত ব্লগ (খিচুড়ী ব্লগ), প্রজন্ম ফোরাম , আমাদের প্রযুক্তি, টেকটিউনস, আড্ডার আসর, আইটেক বাংলা, রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজের বাংলা ফোরাম (আরএমসি ফোরাম) এবং ডিজিটাল দুনিয়া

আপডেট: আয়োজনের কিছু ছবি

Posted in খেয়াল করুন, জেনে রাখুন, দেশ ও জাতির প্রতি দ্বায়বদ্ধতা, প্রযুক্তি নিয়ে আউলা চিন্তা, ভালো লাগা, ভালোবাসা

“পেঙ্গুইন মেলা – ২০১১” ঢাকা বিভাগের আয়োজন

এই অনুষ্ঠান কি আপনার জন্য?

পাঠকের কাছে ১০টি ব্যক্তিগত প্রশ্ন:

১. আপনি কি দেশপ্রমিক? দেশের প্রতি আপনার ভালোবাসা কি ‘মা’ কে ভালোবাসার মতো?
২. দূর্নীতিতে দেশের মান সম্মান মাটিতে গড়াগড়ি খাচ্ছে দেখে আপনি কি চিন্তিত হন? এর প্রতিকারে নিজের করণীয় সম্পর্কে ভাবেন?
৩. আপনি কি আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল? সচরাচর আইন অমান্য করেন না কিংবা করতে চান না?
৪. আপনি কি কম্পিউটারে ভাইরাসের জ্বালা-যন্ত্রনায় অতিষ্ট? এ যন্ত্রনা থেকে মুক্তির পথ খুঁজছেন?
৫. আপনি কি কম্পিউটারে আপনার মূল্যবান তথ্যের নিরাপত্তা নিয়ে চিন্তিত?
৬. আপনি কি হালকা পাতলা বুদ্ধিবৃত্তিক চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করার সামর্থ্য রাখেন এবং তা উপভোগ করেন?
৭. আপনি কি নতুন নতুন কম্পিউটার প্রোগ্রাম নিয়ে গবেষনা করতে পছন্দ করেন?
৮. আপনি কি ইন্টারনেটে বিচরন করার সময়ে ভাইরাস ও ম্যালওয়্যারজনিত নিরাপত্তাহীনতায় ভোগেন?
৯. আপনি কি দামী সব সফটওয়্যারের ফ্রী/উন্মুক্ত বিকল্প খুঁজছেন?
১০. আপনি কি জনসাধারনের/সাধারন কম্পিউটার ব্যবহারকারীদের সেবা করতে আগ্রহী?

প্রিয় ভাই/বোন, উপরের এই প্রশ্নগুলোর উত্তর লিখে কোন ঠিকানায় গোপনে পোস্ট করতে হবে না। শুধুমাত্র যদি কোন প্রশ্নের উত্তর আপনার মন থেকেই ‘হ্যাঁ’ বোধক হয় তাহলে এই অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করে আপনি নিশ্চিতভাবেই কিছুটা উপকৃত হবেন। আর তা না হলে এই প্রশ্নপত্র পড়িয়ে আপনার মূল্যবান সময় নষ্ট করার জন্য আন্তরিকভাবে দুঃখ প্রকাশ করছি।

এবার তাহলে জেনে নিন অনুষ্ঠানের বিস্তারিতঃ–

তারিখ: ৮ই এপ্রিল ২০১১ইং, রোজ শুক্রবার

সময়: বিকাল ৩টা থেকে ৭টা

স্থান: ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আরসি মজুমদার মিলনায়তন
(শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত; অপরাজেয় বাংলার পেছনে কলা ভবন, তার পেছনে লেকচার থিয়েটার ভবন, ঐ ভবনটির নিচতলাতেই)

প্রবেশ মূল্য: ২০ টাকা।

অনুষ্ঠানসূচী:
# লিনাক্স ও ওপেন সোর্স বিষয়ে মুক্ত আলোচনা। — ২৫ মিনিট
# পাইরেসী প্রতিরোধে লিনাক্স ও ওপেন সোর্স এর ভূমিকা — ২৫ মিনিট
# লিনাক্স ও ওপেন সোর্স সফটওয়্যার ব্যবহারের সুবিধা — ২৫ মিনিট
# অতিথি ও অংশগ্রহনকারীদের আপ্যায়ন পর্ব — ৪০ মিনিট
# অতিথি ও অংশগ্রহনকারীদের সমন্বিত আলোচনা ও মতামত বিনিময় — ১২০ মিনিট

আরও থাকছে:
ফাউন্ডেশন ফর ওপেন সোর্স সলিউশনস বাংলাদেশ (FOSS Bangladesh) কর্তৃক সংকলিত/কাস্টমাইজ করা লিনাক্স মিন্ট ১০ জুলিয়া’র ডিভিডি (৫০ টাকা)। কাস্টমাইজড ডিভিডিটাতে এবারে পাসওয়ার্ড জনিত ঝামেলা দূরীভূত করা হয়েছে। তদুপরি কাস্টম ডিস্ট্রোটিতে এবারে থাকছে বেশ কিছু ওপেনসোর্স ও ফ্রী থ্রিডি গেমস যেমন এলিয়েন এরেনা, নেক্সুইজ, ব্যাটেল ফর ওয়েসনর্থ এবং অ্যাসল্টকিউব ইত্যাদি।

বাংলাদেশের সকল লিনাক্সপ্রেমী/আগ্রহীদের জন্য এটা একটা উন্মুক্ত আয়োজন। তাই সকলের অংশগ্রহন ও সহযোগীতা প্রত্যাশা করছি।

আয়োজনে: ফাউন্ডেশন ফর ওপেন সোর্স সলিউশনস বাংলাদেশ (FOSS Bangladesh) – একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন।

আয়োজনে অংশগ্রহনে আগ্রহী হলে এখানে কিছু তথ্য প্রদানের মাধ্যমে অায়োজকদের সহযোগীতা করুন।

যেসব ব্লগ ও ফোরামে এই আয়োজনের সংবাদ পাবেন — শামীম ভাইয়ের ব্যক্তিগত ব্লগ (খিচুড়ী ব্লগ), প্রজন্ম ফোরাম , আমাদের প্রযুক্তি, টেকটিউনস, আড্ডার আসর, আইটেক বাংলা, এবং ডিজিটাল দুনিয়া

আপডেট: আয়োজনের কিছু ছবি